February 22, 2020, 10:37 pm

উভয় বাজারে পতন দিয়ে শেষ হলো

উভয় বাজারে পতন দিয়ে শেষ হলো

প্রতিবেদক: টানা তিন কার্যদিবস ধরে পতন চলছে উভয় পুঁজিবাজারে। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৪২ শতাংশ কোম্পানির দর পতনে ডিএসইএক্স সূচক ১২ পয়েন্ট কমেছে। লেনদেন কমে ৩৭৬ কোটি টাকা হয়েছে। লেনদেনের শুরু থেকেই সূচক বারবার ওঠানামা করতে করতে শেষ পর্যন্ত নেতিবাচক থেকে যায়। চিটাগাং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক, শেয়ারদর ও লেনদেনে একই চিত্র দেখা যায়। বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১২ দশমিক ৯৩ পয়েন্ট বা দশমিক ২৮ শতাংশ কমে চার হাজার ৪৫২ দশমিক ৯৬ পয়েন্টে অবস্থান করে।ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক এক দশমিক ৯০ পয়েন্ট বা দশমিক ১৮ শতাংশ কমে এক হাজার ২৭ দশমিক ৪১ পয়েন্টে এবং ডিএস৩০ সূচক পাঁচ দশমিক ৩৬ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৫ শতাংশ কমে এক হাজার ৫১৩ দশমিক ৮৬ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন ৩৭৭ কোটি ৮৪ লাখ টাকা কমে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৪০ হাজার ৪৪৭ কোটি ৯ লাখ ৫৮ হাজার টাকায়। ডিএসইতে লেনদেন হয় ৩৭৬ কোটি ৫৫ লাখ ৫১ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৪২০ কোটি ৬০ লাখ ৬ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে ৪৪ কোটি চার লাখ টাকা। এদিন ১৩ কোটি ৪০ লাখ ৬৫ হাজার ৬১৮টি শেয়ার এক লাখ ২১ হাজার ৫৪১ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৫৫ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৩টির, কমেছে ১৫১টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৬১টির দর। গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ। কোম্পানিটির ২০ কোটি  ৭৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ৭০ পয়সা। এরপর এডিএন টেলিকমের ১৫ কোটি ১৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে দুই টাকা ৬০ পয়সা। ইন্দোবাংলা ফার্মার ৯ কোটি ১১ লাখ টাকা লেনদেন হয়। বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের আট কোটি ৫০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে এক টাকা ৩০ পয়সা। বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্ল কোম্পানির আট কোটি ৩২ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে এক টাকা ১০ পয়সা। এছাড়া সিলকো ফার্মার সাত কোটি ৮৬ লাখ টাকা, বিবিএস কেব্লসের ছয় কোটি ৬৮ লাখ টাকা, এমএল ডায়িংয়ের ছয় কোটি ৫৭ লাখ টাকা, অ্যাডভেন্ট ফার্মার ছয় কোটি ৩৩ লাখ টাকা ও কপারটেকের ছয় কোটি ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।  ১০ শতাংশ বেড়ে সিলকো ফার্মা দরবৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে। এরপর মতিন স্পিনিংয়ের দর ৯ দশমিক ৬৭ শতাংশ, বিডি অটোকারের দর আট দশমিক ১১ শতাংশ, এডিএন টেলিকমের দর ছয় দশমিক ৬০ শতাংশ, এবিবি ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের দর ছয় দশমিক ৫২ শতাংশ, সমতা লেদারের দর ছয় দশমিক ২০ শতাংশ, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজের দর ছয় দশমিক ১১ শতাংশ, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজের দর পাঁচ দশমিক ২২ শতাংশ, প্রাইম ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের দর পাঁচ শতাংশ, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজের দর পাঁচ শতাংশ বেড়েছে। পাঁচ দশমিক ৫৫ শতাংশ কমে দরপতনের শীর্ষে উঠে আসে সিএনএ টেক্স। জুট স্পিনার্সের দর চার দশমিক ১৪ শতাংশ কমেছে। সিএপিএম বিডিবিএল মিউচুয়াল ফান্ডের দর তিন দশমিক ৭০ শতাংশ, পাইয়োনিয়ার ইন্স্যুরেন্সের দর তিন দশমিক ৩৯ শতাংশ, কেয়া কসমেটিকসের দর তিন দশমিক ৩৩ শতাংশ, ফারইস্ট ফাইন্যান্সের দর তিন দশমিক ২২ শতাংশ, আইসিবি ইসলামী ব্যাংকের দর তিন দশমিক ২২ শতাংশ, ঢাকা ডায়িংয়ের দর তিন দশমিক ১২ শতাংশ, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের দর তিন শতাংশ ও ইমাম বাটনের দর দুই দশমিক ৯২ শতাংশ কমেছে।  অন্যদিকে সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ১৯ দশমিক ৮০ পয়েন্ট বা দশমিক ২৪ শতাংশ কমে  আট হাজার ২১১ দশমিক ৯৭ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৩৬ দশমিক ৯৫ পয়েন্ট বা দশমিক ২৭ শতাংশ কমে ১৩ হাজার ৫৪২ দশমিক ৫৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৩৭ কোম্পানি এবং মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০০টির, কমেছে ১০১টির ও অপরিবর্তিত ছিল ৩৬টির দর। সিএসইতে এদিন ১৪ কোটি এক লাখ ১৫ হাজার ৮১৭ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ১৪ কোটি ১৮ লাখ ৭৩ হাজার ১০১ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে ১৭ লাখ ৫৭ হাজার টাকা।  সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে এডিএন টেলিকম। কোম্পানিটির এক কোটি ২২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এর পরের অবস্থানগুলোতে থাকা লাফার্জহোলসিমের এক কোটি ১৪ লাখ, বেক্সিমকোর ৬৫ লাখ, অ্যাডভেন্ট ফার্মার ৫৯ লাখ, এসএস স্টিলের ৫৯ লাখ, গ্রামীণফোনের ৪৮ লাখ, বিএসসির ৪১ লাখ, সিঙ্গার বিডির ৪০ লাখ, স্কয়ার ফার্মার ৩৮ লাখ ও কনফিডেন্স সিমেন্টের ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2020
Design & Developed BY SHAH RANA